Sale!

ময়নামতির পোড়ামাটির ফলকে সমতট

ময়নামতির পোড়ামাটির ফলকে সমতট গ্রন্থটি প্রত্নতাত্ত্বিক উৎস নির্ভর একটি মৌলিক গ্রন্থ। এতে সপ্তম থেকে ত্রয়োদশ শতকের দক্ষিণ-পূর্ব বাংলা তথা সমতট অঞ্চলের লালামাই-ময়নামতি প্রত্নস্থলে প্রাপ্ত পোড়ামাটি ফলকগুলোর বিশ্লেষণধর্মী আলোচনা উপস্থাপিত হয়েছে। প্রাচীন বাংলার ধর্ম-সংস্কৃতির অন্যতম কেন্দ্র রূপে পরিচিত এই প্রত্নস্থলের দেওয়াল অলঙ্করণের ক্ষেত্রে মৃৎফলকগুলোর ব্যবহার পরিলক্ষিত হয়। এই ফলক চিত্রগুলোতে স্থান পেয়েছে প্রাণী-জগতের বিচিত্র নিদর্শন, পৌরাণিক কাহিনি ও চরিত্র, মানুষের নিত্যদিনের কর্মময় জীবন, অভ্যাস, সংস্কার, স্থানীয় ও পারিপার্শ্বিক নানা বৈচিত্র্যপূর্ণ বিষয়। ফলে প্রাচীনকাল থেকে ভৌগোলিক দিক থেকে কিছুটা বিচ্ছিন্ন দক্ষিণ-পূর্ব বাংলার সমকালীন মানুষ ও প্রকৃতির চিত্র এই ফলকগুলোর মাধ্যমে উন্মোচিত হয়েছে।

৳ 385.00 ৳ 308.00

Out of stock

Book Details

Language

Binding Type

ISBN

Publishers

Release date

Pages

Size

8.4 X 5.5

Weight

Price

Tk 385 US : $ 20 UK : £ 10

About The Author

শারমীন আখতার

জন্ম ১৯৭৭ সালের ১৯ এপ্রিল। পৈত্রিক নিবাস কুমিল্লা জেলার কোতোয়ালি থানায়। পিতা এ. কে. এম. আবু মুছা এবং মাতা ফাহিমা মুছার কনিষ্ঠ কন্যা। জন্মস্থান ঢাকা। ১৯৯২ সালে এস. এস. সি প্রথম বিভাগে উত্তীর্ণ হন কুমিল্লার ফয়জুন্নেছা সরকারি উচ্চ বালিকা বিদ্যালয় থেকে। ১৯৯৪ সালে বদরুন্নেছা সরকারি মহিলা কলেজ থেকে প্রথম বিভাগে উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হন। ১৯৯৭ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাস বিভাগ থেকে দ্বিতীয় শ্রেণিতে দ্বিতীয় স্থান লাভ করে স্নাতক সম্মান পাশ করেন। ১৯৯৮ সালে একই বিভাগ থেকে প্রথম শ্রেণিতে প্রথম স্থান অর্জন করে এম. এ. ডিগ্রি লাভ করেন। প্রাচীন বাংলার বিভিন্ন বিষয়ে তার লিখিত প্রবন্ধের সংখ্যা নয়টি। বাংলাদেশ এশিয়াটিক সোসাইটি পত্রিকা, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় পত্রিকা, বাংলা একাডেমী পত্রিকা, উচ্চতর মানববিদ্যা পত্রিকাসহ বিভিন্ন পত্রিকায় তাঁর লেখা প্রকাশিত হয়েছে। প্রাচীন বাংলার বিভিন্ন বিষয়ে গবেষণাধর্মী কাজে লেখকের রয়েছে বিশেষ আগ্রহ। এটি তাঁর রচিত প্রথম প্রকাশিত গ্রন্থ।

ময়নামতির পোড়ামাটির ফলকে সমতট গ্রন্থটি প্রত্নতাত্ত্বিক উৎস নির্ভর একটি মৌলিক গ্রন্থ। এতে সপ্তম থেকে ত্রয়োদশ শতকের দক্ষিণ-পূর্ব বাংলা তথা সমতট অঞ্চলের লালামাই-ময়নামতি প্রত্নস্থলে প্রাপ্ত পোড়ামাটি ফলকগুলোর বিশ্লেষণধর্মী আলোচনা উপস্থাপিত হয়েছে। প্রাচীন বাংলার ধর্ম-সংস্কৃতির অন্যতম কেন্দ্র রূপে পরিচিত এই প্রত্নস্থলের দেওয়াল অলঙ্করণের ক্ষেত্রে মৃৎফলকগুলোর ব্যবহার পরিলক্ষিত হয়। এই ফলক চিত্রগুলোতে স্থান পেয়েছে প্রাণী-জগতের বিচিত্র নিদর্শন, পৌরাণিক কাহিনি ও চরিত্র, মানুষের নিত্যদিনের কর্মময় জীবন, অভ্যাস, সংস্কার, স্থানীয় ও পারিপার্শ্বিক নানা বৈচিত্র্যপূর্ণ বিষয়। ফলে প্রাচীনকাল থেকে ভৌগোলিক দিক থেকে কিছুটা বিচ্ছিন্ন দক্ষিণ-পূর্ব বাংলার সমকালীন মানুষ ও প্রকৃতির চিত্র এই ফলকগুলোর মাধ্যমে উন্মোচিত হয়েছে। ফলকগুলোর বিশ্লেষণধর্মী আলোচনার মাধ্যমে সমতট অঞ্চলের মানুষের সামাজিক ও ধর্মীয় জীবন, চিন্তা-চেতনা, শিল্পবোধ সম্পর্কে গুরুত্বপূর্ণ কিছু তথ্য গ্রন্থটিতে পাওয়া যায়, যা স্থানীয় ইতিহাস চর্চার ক্ষেত্রে একটি মাইলফলক হিসেবে কাজ করবে। এছাড়া পোড়ামাটির শিল্পে এ অঞ্চলের প্রকৃতি, পরিবেশ ও মানুষের অকৃত্রিম বন্ধনের চিত্র ফুটে উঠেছে। একই সাথে প্রতিফলিত হয়েছে মানুষের সৃষ্টিশীল চেতনা ও প্রত্যক্ষবোধ। সভ্যতার অগ্রগতির এই গবেষণা কর্মটি দক্ষিণ-পূর্ব বাংলার আঞ্চলিক ইতিহাস চর্চায় শিক্ষার্থী ও গবেষকদের জন্য সহায়ক হবে বলে মনে করি।

Reviews

There are no reviews yet.

Be the first to review “ময়নামতির পোড়ামাটির ফলকে সমতট”

Your email address will not be published. Required fields are marked *